অতিরিক্ত ওজন নিয়ে চিন্তিত? পড়ুন ডুবো তেলে ভাজা ছাড়াই সুস্বাদু ৭টি খাবারের রেসিপি

0
3618

ডুবো তেলে ভাজা খাবার একদিকে যেমন সুস্বাদু অপরদিকে স্বাস্থ্যের জন্যও অনেক ক্ষতিকর। ডায়েটের চিট ডেতে দুই একদিন ভাঁজাপোড়া খেলে তাও স্বাস্থ্য ভালো থাকবে তবে যদি প্রতিনিয়ত ভাজাপোড়া খেতে থাকি সেক্ষেত্রে স্বাস্থ্যের অবস্থা একদম খারাপ হয়ে যাবে। ভাজাপোড়া বেশি খেলে যেমন শরীরে চর্বি বা ফ্যাট জমে আবার এথেকে হতে পারে বিভিন্ন রকম রোগ। এর মাঝে হার্টের অসুখ অন্যতম। খালি পেটে যদি ভাজাপোড়া বেশি খাওয়া পড়ে সেক্ষেত্রে গ্যাস্ট্রিক থেকে আলসার হবার সম্ভাবনাও থাকে।

তবে এত নিয়ম কানুনের মাঝে স্বস্তির খবর হলো বিভিন্ন ফুড ব্লগার এবং রাঁধুনিরা মিলে এমন কিছু রেসিপি উদ্ভব করেছেন যাতে আপনি খুব সহজেই ভাজাপোড়া খেতে পারবেন কিন্তু সেগুলো না ভেজেই। খুব অবাক হচ্ছেন? হ্যাঁ, একদম ডুবো তেলে ভাজা খাবারের মতো স্বাদই পাবেন তবে তা ডুবো তেলে ভাজতে হবে না। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক সেসব মজাদার এবং স্বাস্থ্যকর রেসিপিগুলো সম্পর্কে।

১. ফ্রাইড চিকেনের স্বাদ তবে বেক করা

ফ্রাইড চিকেন তবে বেইক করা; Image Source: generalmills.com

ডুবো তেলে ভাজা কোনো রেসিপিকে স্বাস্থ্যকর বানানোর জন্য সবচেয়ে সহজ উপায় হলো বেক করা। আপনি যদি খাবার ওভেনে বেক করেন তবে অতিরিক্ত ফ্যাট কেটে যায় তবে অনেক সময় খাবারের স্বাদে কিছুটা তারতম্য হয়। তবে চিকেন ফ্রাই তৈরীর সাধারণ উপকরণ দিয়ে তবে তেলে না ভেজে ওভেনে বেক করলে তা স্বাস্থ্যকরও হবে আবার সুস্বাদুও হবে।

২. ক্রিস্পি ক্রাঞ্চি এয়ার ফ্রায়ার ফ্রেঞ্চ ফ্রাই

ক্রিস্পি ক্রাঞ্চি এয়ার ফ্রায়ার ফ্রেঞ্চ ফ্রাই; Image Source: tastykitchen.com

নাম শুনলেই জিভে পানি চলে আসে। ফ্রেঞ্চ ফ্রাই আর সাথে একটু সস। বিকালের নাস্তা হিসেবে অন্যতম আবার বাচ্চাদের টিফিনের জন্যও পারফেক্ট। তবে ডুবো তেলে ভাজা ফ্রেঞ্চ ফ্রাই স্বাস্থ্যের জন্য খুব একটা ভালো না। ভালো না বললে কী খাবার খাওয়া একদম ছেড়ে দিবেন? অবশ্যই না। স্বাস্থ্যকর উপায়ে খাবার তৈরীর উপায় খুঁজে রান্না করবেন এবং পেট ভরে খাবেন।

আজকাল বাজারে এয়ার ফ্রায়ার কিনতে পাওয়া যায়। দাম ব্র্যান্ড ভেদে বিভিন্ন রকম। তবে বাংলাদেশী টাকায় ৭০০০- ৮০০০ টাকার মাঝে পেয়ে যাবেন। রেসিপি একদম সোজা শুধু ডিপ ফ্রাই না করে এয়ার ফ্রায়ার মেশিনের নিয়ম অনুযায়ী দিয়ে দিবেন আর রেডি আপনার স্বাস্থ্যকর ফ্রেঞ্চ ফ্রাই।

৩. ওভেন বেকড ফ্রাইড পিকেলস (pickles)

ওভেন বেকড ফ্রাইড পিকেলস; Image Source: ladybehindthecurtain.com

পিকেলস তথা বাংলায় আঁচার। শসাকে ভিনেগার কিংবা এসিড জাতীয় কোনো দ্রবণে ডুবিয়ে রাখা হয় কিছুদিন। এরপর তৈরি হয়ে যাবে কাঙ্ক্ষিত পিকেলস। একই উপায়ে জলপাই, পেয়াজের পিকেলস বানিয়েও রাখতে পারেন।

যেকোনো জিনিস তেলে ভেজে খাবার মজাই আলাদা। ক্রিস্পি যেকোনো খাবারই জিভে জল আনার জন্য যথেষ্ট। বাটারমিল্ক ড্রেসিং এর সাথে খুব সহজেই এই মজাদার রেসিপি তৈরি করতে পারেন। তেলে না ভেজে ওভেনে বেক করলেই হয়ে যাবে। যদিও ফ্রাইড পিকেলস খুব একটা স্বাস্থ্যকর নয় কিন্তু ট্র্যাডিশনাল খাবারের চেয়ে এইটি অনেক ভালো।

৪. ফ্রাইড রাইস, যা কিনা সত্যিই স্বাস্থ্যকর

ফ্রাইড রাইস; Image Source: banner2.kisspng.com

যদিও ফ্রাইড রাইস নাম তবে এতে তেলের ব্যবহার নেই বললেই চলে। বাদামী চাল আর নিজের পছন্দমত সবজি দিয়েই তৈরী করতে পারেন এই ফ্রাইড রাইস। প্রথমে নিজের পছন্দমত সবজি কেটে নিন। পরবর্তীতে সেগুলো ফ্রাইপেনে সামান্য তিলের তেল দিয়ে ভাজুন। অপরদিকে একটি ডিম ফেটে তা ভেজে নিন।

এরপর এতে সেদ্ধ করা ভাত দিয়ে দিন এবং একটু সয়াসস দিন্ন। এরপর তাপ বাড়িয়ে অনবরত নাড়তে থাকেন। ব্যস, তৈরী হয়ে গেলো সুস্বাদু এবং স্বাস্থ্যকর ফ্রাইড রাইস।

৫. সবুজ আপেলের সাথে  বেকড ডোনাটস

সবুজ আপেলের সাথে  বেকড ডোনাটস; Image Source: pinterest.com

ডোনাটের কথা শুনলেই প্রথমেই চোখে ভেসে উঠে ডুবো তেলে গোল গোল চাকা ভাঁজা হচ্ছে। তবে ডুবো তেলে না ভেঁজেও আপনি ওভেনে বেক করা ডোনাট তৈরী করতে পারেন। এতে যেমন কাজের কষ্ট কম আবার খাবারটি স্বাস্থ্যকরও। তবে এর জন্য খুব ভালো মানের বেকিং পেপার ব্যবহার করতে হবে যাতে করে ডোনাট সব দিক থেকে ঠিকমত বেক হয়।

৬. কম ক্যালরি বিশিষ্ট ফ্লেভারে ভরপুর মোজারেলা স্টিক

কম ক্যালরী বিশিষ্ট ফ্লেভারে ভরপুর মোজারেলা স্টিক; Image Source: s23209.pcdn.co

মোজারেলা চিজ, নাম শুনলেই জিভে জল আসে। চিজ পছন্দ করে না এমন মানুষ খুব কম আছে। তবে ক্যালরি আর ফ্যাটের কথা চিন্তা করে অনেকেই খেতে চান না। কিন্তু মোজারেলা চিজ স্টিক অনেকেরই নাস্তার তালিকায় প্রথম স্থান নিয়ে নিয়েছে।

এই সুস্বাদু রেসিপিটি তৈরী করতে আপনার খুব বেশী কিছু প্রয়োজন হবে না। মোজারেলা স্টিক, ব্রেড ক্রাম্বস, ডিম, সামান্য অলিভ অয়েল, ময়দা এবং ইটালিয়ান সিজনিং এর দরকার পড়বে মূলত। প্রথমে মোজারেলা স্টিকগুলোকে আঙ্গুলের আকৃতিতে কেটে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে নিতে হবে। এরপর একটি বাটিতে ফেটানো ডিম, আরেকটি বাটিতে ময়দা এবং অন্য বাটিতে ব্রেড ক্লাম্বস এবং ইটালিয়ান সিজনিং মিশিয়ে রাখতে হবে।

তারপর প্রথমে ডিমে ভিজিয়ে ময়দা মাখাতে হবে। এরপর আবার ডিমে ডুবিয়ে ব্রেড ক্রাম্বস মেখে নিতে হবে। এরপর ট্রে তে বেকিং পেপার বিছিয়ে তাতে মোজারেলা স্টিক গুলো দিয়ে উপরে সামান্য অলিভ অয়েল ব্রাশ করে বেক করতে হবে। আর তৈরি হয়ে যাবে আপনার সুস্বাদু মোজারেলা স্টিক যা কিনা ডুবো তেলে ভাজার প্রয়োজন নেই।

৭. ফ্রাইড এপল চিপস

ফ্রাইড এপল চিপস; Image Source: ultimatepaleoguide.com

অবাক হচ্ছেন? কলা দিয়ে যদি চিপস বানানো যায় তবে আপেল দিয়ে কেন নয়? একবার খাওয়ার পর আপনি আলুর চিপস খাওয়া বাদ দিয়ে আপেলের চিপস খাওয়া শুরু করবেন। কেননা এইটি এক দিক দিয়ে যেমন সুস্বাদু আবার স্বাস্থ্যকরও বটে।

এর জন্য সবার প্রথমেই আপনার প্রয়োজন পড়বে খুব ভাল মানের স্লাইসার। কেননা আপেলটিকে খুব পাতলা করে কাটতে হবে প্রথমে। তার আগে এয়ার ফ্রায়ারকে ৩৯০° ফারেনহাইটে প্রি-হিট করে নিতে হবে। এরপর একটি পাত্রে সামান্য আধা চামচ দারুচিনি গুড়া এবং এক টেবিল চামচ পরিমাণ চিনি মিশিয়ে নিতে হবে। একটি আপেল পাতলা করে কেটে বেকিং ট্রেতে বিছিয়ে তার উপর চিনি এবং দারুচিনির মিশ্রণ ছিটিয়ে দিন। বাদামী রঙ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। সব মিলিয়ে ৭ থেকে ৮ মিনিট লাগতে পারে। ব্যস, তৈরী হয়ে গেলো মজাদার এয়ার ফ্রাইড এপল চিপস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here