কফি এক্সপ্রেসের কোল্ড কফি ও মিনি চিকেন বার্গার

0
456

বাসার গলিতেই কফি এক্সপ্রেস (Coffee Express) নামক কফি শপটি। খুব ছোট আকারের একটি কফি শপ এটি। তবে এলাকার মানুষদের ভিড় ছোট হয়না। বিকেল থেকে ভালোই ভিড় চোখে পড়ে এই কফি শপটিতে। মূলত এই এলাকার শিশুদের কাছে এই কফি শপটি একটি প্রিয় জায়গা।

ছোট্ট এই কফি শপটিতে আড্ডা দিতে ভালোবাসে এলাকার স্কুল, কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা। প্রথমে ছোট্ট একটি কফি শপ ছিলো এটি, পরে এর সাথেই রাস্তার পাশে যুক্ত করা হয় ক্যাফে এক্সপ্রেস নামেই একটি ফুড ভ্যান। এই ফুড ভ্যানটিতে পাওয়া যায় নানা ধরনের বার্গার। ৫০ টাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্বাদের, বিভিন্ন দামের বার্গার পাওয়া যায় এখানে।

source: লেখিকা

বর্তমানে ক্যাফে এক্সপ্রেস কফি শপটি থেকে অল্প কিছুটা দূরে কফি এক্সপ্রেসের আরো বিশাল একটি রেস্টুরেন্ট তৈরি হয়েছে। তবে সেই রেস্টুরেন্টের জন্য কমেনি ছোট্ট এই কফি শপের কফি ও ছোট্ট ফুড ভ্যানটির মিনি বার্গারের চাহিদা। এখনো সন্ধ্যা হলেই এখানকার শিশু, কিশোর ও বড়রা ভিড় জমায় এই কফি শপটিতে। কফি শপটি খোলা থাকে সকাল ১১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত।

শিশুদের মতো আমারও মোটামুটি প্রিয় তালিকাতেই আছে কফি এক্সপ্রেসের কফি। বিশেষ করে এদের হট কফি ও মিনি চিকেন বার্গার। কফি ও বার্গারের দাম মোটামুটি কমের মধ্যে থাকায় আর কফি শপটি নিজের বাসার খুব কাছে হওয়ায় প্রায়ই আসা হয় এখানে। এবারো এলাম আর চেখে দেখলাম এখানকার রেগুলার কোল্ড কফি, চকলেট কোল্ড কফি ও মিনি চিকেন বার্গার।

source: লেখিকা

ক্যাফেটি আকারে বেশ ছোট, ভেতরে ১০টি ছোট্ট চেয়ার রাখা আছে বসার জন্য। বাহিরের ফুড ভ্যানটিও ছোট। এ কারণে ভিড়টা রাস্তার বাহিরে পর্যন্ত চলে আসে। সন্ধ্যার পর মানুষের বেশ বড় আকারের একটি জটলা চোখে পড়ে কফি শপটির সামনে, বার্গারের ফুড ভ্যানটিকে ঘিরে। অনেকেই পার্সেল নিয়ে যান কফি কিংবা বার্গার বাসায় গিয়ে খাওয়ার জন্য।

অর্ডার করার পর কফি কিংবা বার্গার প্রস্তুত হতে খুব বেশি সময় লাগে না। মোটামুটি ৫ মিনিটের মধ্যেই পেয়ে গেলাম আমাদের রেগুলার কোল্ড কফি, চকলেট কোল্ড কফি আর মিনি চিকেন বার্গার। উপর থেকে ভালোভাবে বোঝা না গেলেও ভেতরে চিকেন আর সসের পরিমাণটা খুব ভালো থাকে।

source: লেখিকা

নরম বানের ভেতর থাকা চিকেনের অংশ, টমোটোর স্লাইস, সসার স্লাইস, টমেটো কেচাপ আর হোয়াইট সসের স্বাদ মুখে পড়তেই বেশ ভালোলাগবে। তবে এই মিনি বার্গার একটিতেই কিছুই যায় আসবে না পেটের, তার উপর স্বাদের কথা তো আছেই আলাদাভাবে। তাই যেন দুটি বার্গার না হলেই নয়!

এখানকার বিভিন্ন ধরনের বার্গার ও বার্গারের দামের তালিকা

source: লেখিকা

মিনি চিকেন বার্গার- ৫০
আমেরিকান বার্গার- ১০০
বিফ বার্গার- ১২০
নাগা বার্গার (বিফ/চিকেন)- ১৪০
এক্সপ্রেস বার্গার- ১৫০
কিং বার্গার- ২০০

(অতিরিক্ত চিজ নিতে চাইলে আলাদা করে ২০ টাকা রাখা হয় চিজ বাবদ।)

কোল্ড কফি

রেগুলার কোল্ড কফি কিংবা চকলেট কোল্ড কফি আসলেই কফির পর্যায়ে পড়ে কিনা তা আমার সঠিকভাবে জানা নেই। কারণ প্রায় সবখানেই এ ধরনের কফির ভেতর কফির তুলনায় বরফ ও চিনির পরিমাণটাই বেশি পাওয়া যায়। অন্যান্য জায়গার মতো এখানেও তাই। তবে স্বাদের সাথে তুলনা করলে অন্যান্য জায়গার তুলনায় পিছিয়ে পড়বে না কফি এক্সপ্রেসের কফিগুলো। এখানে অসংখ্য স্বাদের কফি পাওয়া যায়।

বিভিন্ন ধরণের কোল্ড কফি ও দাম

source: লেখিকা

স্বাদ

বার্গার

source: লেখিকা

এখানকার মিনি চিকেন বার্গারটি ‘মাস্ট ট্রাই’ আইটেম। এই মিনি চিকেন বার্গারটি আমার অনেক পছন্দের। নরম বানের ভেতর থাকা চিকেন প্রত্যেকবারই ভালো লেগেছে। চিকেনের টুকরোগুলো প্রত্যেকবারই ভালোভাবে রান্না করা পেয়েছি, ভেতরে ভালোভাবে মসলা ঢোকায় খেতে বেশ ভালো লাগে। তাছাড়া সস সহ বাকি উপকরণও বেশ ভালো পরিমাণেই ছিলো।

রেটিং- ১০/৮

রেগুলার কোল্ড কফি ও চকলেট কোল্ড কফি

source: লেখিকা

এ ধরণের কফিগুলো বরাবরই আমার কাছে ‘এভারেজ’ লাগে। বাচ্চাদের জন্য কফিগুলো বেশ ভালো। বাচ্চারা পছন্দও করে। ছোট ভাইয়ের মতে, এই কফিগুলো খেতে দারুণ। ও বেশ পছন্দ করে কোল্ড কফিগুলো। বিশেষ করে চকলেট কোল্ড কফি ওর বেশি প্রিয়। আমার কাছে সেই একই, ‘এভারেজ’ লেগেছে।

রেটিং- ১০/৬

পরিবেশ

source: লেখিকা

ছোট জায়গা। বসার আসন মাত্র ১০টি। আর আসনগুলো দেখে মনে হয় শুধুমাত্র শিশুদের জন্যই সে আসনগুলো রাখা। প্রায়ই দাঁড়িয়ে খেতে হয় কফি কিংবা বার্গার৷ তবে সকালের দিকে চাপ কম থাকে। তখন আসন পাওয়া যায় বসার। বিকেল থেকেই মূলত ভিড় হতে শুরু করে। তাছাড়া বেশ পরিচ্ছন্ন পুরো ক্যাফেটি।

মূল্য

মিনি বার্গার ৫০ টাকা, রেগুলার কোল্ড কফি ৪০ টাকা ও চকলেট কোল্ড কফি ৫০ টাকা। সব মিলিয়ে খাবার বাবদ আমাদের খরচ হয়েছে ১৪০ টাকা। এই কফি শপটিতে আগে পে করতে হয় খাবার নিতে। খাবারের বিলের জন্য আলাদা কোনো কাগজ বা রিসিট দেয়া হয় না।

সার্ভিস

ভেতরে প্রায়ই ছোট একটি ছেলে থাকে, বাহিরের বার্গারের দোকান সামলায় আরো একজন লোক। বিকেলের পর থেকে ভিড় বাড়ায় কফি শপটি সামলান ২ থেকে ৩ জন। প্রত্যেকেরই ব্যবহার বেশ ভালো।

লোকেশন

দক্ষিণ বনশ্রী মেইন রোড থেকে ভেতরে। দক্ষিণ বনশ্রী মডেল স্কুলের গলিতে। জি ব্লকের ৯ নাম্বার রোড, সেবা ফার্মেসি ও ছোঁয়া বিউটি পার্লারের পাশে।

ফিচার ইমেজ- লেখিকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here