গোয়ার ঐতিহ্যবাহী ডেজার্ট ‘বেবিনকা’ তৈরির রেসিপি

0
571

গোয়া ভারতের সবচেয়ে ক্ষুদ্র আয়তনের একটি অঙ্গরাজ্য। কিন্তু বর্তমানে ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য গোয়া পছন্দের তালিকায় প্রথমে থাকে। কোনো জায়গায় ঘুরতে গেলে খাদক হিসেবে আমরা প্রথমত চেষ্টা করি সেসব জায়গায় বিখ্যাত খাবারগুলো চেখে দেখবার।

তাই যেসব ভ্রমণ পাগল মানুষ ভাবছেন শীঘ্রই গোয়া ভ্রমণে বের হবেন এবং সেখানে গিয়ে অবশ্যই কোন খাবরটি খাওয়া উচিত, তাদের জন্যই আজকের এই লেখাটি।

বলছিলাম গোয়ার ঐতিহ্যবাহী ডেজার্ট আইটেম ‘বেবিনকা’র কথা। ডেজার্ট আইটেম আমরা সবাই কম-বেশি পছন্দ করে খেয়ে থাকি। যেকোনো উৎসব-অনুষ্ঠানে ডেজার্ট জাতীয় খাবার তৈরি করা হয়ে থাকে।

বেবিনকা; Source: pininterest

ঠিক তেমনি গোয়ার যেকোনো বিশেষ উৎসব বা অনুষ্ঠানে বেবিনকা নামক খাবারটি অবশ্যই তৈরি করা হয়ে থাকে। এই খাবারটি ‘বেবিক’ নামেও পরিচিত। বেবিনকা স্বাদে আমাদের দেশের পুডিঙের মতোই।

কিন্তু এটি সাত লেয়ারে তৈরি করা হয়। সাধারণত ময়দা, ডিম, চিনি, নারকেল দুধ, দারুচিনি গুঁড়া ও জায়ফল গুঁড়ার সমন্বয়ে তৈরি করা হয় গোয়ার এই বিখ্যাত ডেজার্ট খাবারটি।

তবে বেবিনকা কত লেয়ারের হবে তার পুরোটাই নির্ভর করে আপনার ওপর। অনেকে সাত লেয়ারের জায়গায় ষোল লেয়ারও করে থাকে। বেবিনকা বানানোর জন্য আপনার খুব বেশি ধৈর্য্য রাখতে হবে। তবে আশার কথা আপনি একবার বেবিনকা তৈরি করলে তা এয়ারটাইট কন্টেইনারে রেখে প্রায় সপ্তাহ ব্যাপী সংরক্ষণ করতে পারবেন।

গোয়াতে বেবিনকা সাধারণত অনেক সময় নিয়েই তৈরি করা হয়ে থাকে তাদের উৎসবের জন্য। তবে আপনি বাড়িতে চুলায় বা ওভেনেও তৈরি করতে পারবেন। চুলায় তৈরি করলে বেবিনকার রং একটু গাঢ় হবে আর ওভেনে একটু হালকা। তবে দু’জায়গাতেই স্বাদ একই হবে।

গোয়ার ডেজার্ট বেবিনকা; Source: aromaticessence

তো চলুন বেবিনকা তৈরির রেসিপিটি আমরা জেনে নিই। এটি তৈরি করতে আমাদের সর্বোমোট ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট সময় লাগবে। রান্নার উপকরণ জোগাড় করতে ১০ মিনিট এবং রান্না করতে লাগবে ২ ঘণ্টা ১০ মিনিট। এটি ৮ জনের খাবারের জন্য উপযুক্ত।

প্রয়োজনীয় উপকরণ

  • ৩ কাপ নারকেল দুধ
  • ২ কাপ দানাদার চিনি
  • ২৪টি ডিমের কুসুম
  • ২ কাপ ময়দা
  • দেড় কাপ ঘি
  • ১ চা চামচ জায়ফল গুঁড়া
  • ১ চা চামচ দারুচিনি গুঁড়া
  • ১ চা চামচ ভ্যানিলা নির্যাস
  • লবণ পরিমাণমতো
  • কাঠবাদাম কুচি সাজানোর জন্য

প্রস্তুত প্রণালী

একটি বড় বোলে নারকেলের দুধ ও চিনি একসাথে মিশিয়ে নিন। এবার একটি হুইস্ক দিয়ে ভালো করে চিনি সম্পূর্ণ গলে না যাওয়া পর্যন্ত নাড়তে থাকুন। হুইস্ক না থাকলে আপনি চামচও ব্যবহার করতে পারবেন।

বেবিনকা; Source: indobase

আরেকটি বোলে ডিমের কুসুমগুলো ইলকট্রিক বিটারের সাহায্যে বিট করতে থাকুন। একটা সময় কুসুমগুলো ক্রিমি হয়ে আসবে। ক্রিমি না হওয়া পর্যন্ত বিট করতে হবে। ডিমের কুসুমের ক্রিমি মিশ্রণের সাথে নারকেল দুধ ও চিনির মিশ্রণটি ভালো করে মিশিয়ে নিন।

এবার এর মধ্যে অল্প অল্প করে ময়দা দিয়ে মিশাতে থাকুন। ময়দা মেশানোর সময় সতর্ক থাকতে হবে যেন এটি দলা না পাকিয়ে যায়। মূলত ময়দা যত ভালোভাবে মিশবে বেবিনকা তত ভালোভাবে তৈরি হবে।

মিশ্রণটিতে এক চিমটি লবণ ও সামান্য পরিমাণে ঘি দিয়ে আরও কিছুক্ষণ বিট করে নিন। একটি ইলেকট্রিক ওভেন ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় দশ মিনিট প্রি-হিট করে নিন।

বেবিনকা; Source: aromaticessence

বেকিং প্যানে ১ টেবিল চামচ ঘি মেখে নিন। চাইলে ওভেনে গলিয়েও নিতে পারেন। এবার মিশ্রণটি থেকে ১/২ কাপ পরিমাণ বা ১/৪ ইঞ্চি পুরত্ব করে বেকিং প্যানে দিয়ে দিন। প্যানটি ওভেনের মাঝখানে দিয়ে ২৫ মিনিট বেক করুন। ২৫ মিনিট পর এর উপরের স্তরটি বাদামী রঙের হয়ে যাবে।

ওভেন থেকে প্যানটি নামিয়ে এর উপর খুব দ্রুত ১ টেবিল চামচ ঘি ব্রাশ করে আবার একই পরিমাপ অনুযায়ী মিশ্রণ দিয়ে দিন। এবার এর ওপর সামান্য পরিমাণে দারুচিনি গুঁড়া ও ভ্যানিলার নির্যাস দিয়ে ১৫ মিনিটের জন্য ওভেনের মাঝখানের তাকে বেকিং প্যানটি দিয়ে বেক করুন।

উপরের স্তরটি বাদামী রং হয়ে এলে ওভেন থেকে নামিয়ে একইভাবে ঘি ব্রাশ করে এর ওপর আবার মিশ্রণ ঢেলে দারুচিনি গুঁড়া ও ভ্যানিলা নির্যাস দিয়ে বেক করুন। এভাবে প্রতি লেয়ার ১৫ মিনিট করে বেক করতে হবে।

বেবিনকার টুকরো; Source: cntraveller

সর্বশেষ লেয়ারে মিশ্রণের ওপর দারুচিনি গুঁড়া, ভ্যানিলার নির্যাসের সাথে জায়ফল গুঁড়া দিয়ে দিন। সাথে কিছু পরিমাণে কাঠবাদাম কুচি দিয়ে ২০ মিনিটের জন্য ওভেনে বেক করুন।

বেবিনকা হয়ে গেলে ওভেন থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। ঠাণ্ডা হয়ে গেলে এটি টুকরো করে পরিবেশন পাত্রে সাজিয়ে আইসক্রিমের সাথে কিংবা পছন্দমতো পরিবেশন করুন মজাদার বেবিনকা।

বেবিনকা; Source: xantilicious.com

পুষ্টিগুণ

৮ জনের জন্য তৈরি করা এই বেবিনকাতে ৯৯৩ ক্যালরি, ৭৩ গ্রাম ফ্যাট, ৬৪ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট ও ২৫ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে। যেহেতু মিষ্টি জাতীয় খাবার তাই সুস্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে এই মজাদার খাবারটি আমাদেরকে পরিমিত পরিমাণেই খেতে হবে।

পরামর্শ

এটি এমন একটি রেসিপি যা তৈরি করতে প্রথমত খুব বেশি ধৈর্য্যের প্রয়োজন হয়। খুব তাড়াহুড়ো করে কম সময় নিয়ে আপনি বেবিনকা তৈরি করতে পারবেন না। আর প্রথমবারেই যে আপনার একদম পারফেক্ট বেবিনকা তৈরি হবে, বিষয়টি এমন নয়।

বরং এই রেসিপিটি আপনি যত বেশি বানাবেন আপনার বেবিনকা তত বেশি পারফেক্ট ও খেতে মজাদার হবে। তাই প্রথমবারে যদি ভালো বেবিনকা তৈরি না হয়, হতাশ না হয়ে প্র্যাকটিস করে যেতে হবে।

আপনাকে আরও একটি বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে, এর প্রতিটি লেয়ার যেন একই মাপের হয়। তাই মিশ্রণটি দেয়ার সময়ই আপনাকে ঠিক করতে আপনি ১/৪ ইঞ্চি পুরত্বের জন্য কতটুকু মিশ্রণ বেক করবেন। সে পরিমাপ অনুযায়ীই আপনি প্রতিবার মিশ্রণ দেবেন এবং ওভেনের সময় সেট করে দেবেন।

রান্নার উপাদানগুলো যেখানে পাবেন

বেবিনকা যদিও বিদেশি খাবার তবুও এই খাবারের সবগুলো উপকরণই আমাদের দেশে সহজলভ্য। যেকোনো সুপারশপ বা মুদি দোকানে খুঁজলেই বেবিনকা বানানোর সকল উপকরণ আপনি পেয়ে যাবেন।

Feature Image: PolkaCafe

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here