যেভাবে তৈরি করবেন সুস্বাদু ও পুষ্টিকর আনারসের শরবত

0
707

আনারস থেকে তৈরি জুস খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু। এতে রয়েছে অনেক পুষ্টিকর উপাদান। এই গরমে আনারসের জুস আপনার জন্য হতে পারে পুষ্টিকর পানীয়। আনারসে রয়েছে দেহের জন্য বিভিন্ন উপকারী উপাদান, এতে রয়েছে প্রচুর পরিমান ভিটামিন সি। তবে আনারস ছিঁড়ে এবং কেটে শরবতের জন্য প্রক্রিয়াজাত করতে আপনার জন্য কঠিন হতে পারে। আজকের আয়োজনে যেভাবে তৈরি করবেন সুস্বাদু ও পুষ্টিকর আনারসের জুস, সেসম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা হলো।

আনারস; Source: wikihow.com

আনারস প্রস্তুতকরণ

সুস্বাদু আনারস তৈরি করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে সর্বোত্তম আনারসটি বেছে নিতে হবে। যদি আনারসটি সম্পূর্ণ পাকা না হয় তবে জুসটি খেতে টক হতে পারে, এজন্য অবশ্যই পাকা দেখে একটি আনারস বেছে নিতে হবে। আনারসের জুস তৈরির ক্ষেত্রে সঠিক আনারস বেছে নেয়া সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এক্ষেত্রে কিছু জিনিস অবশ্যই আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে।

  • আনারসের মিষ্টি ও পাকা ঘ্রাণ সুস্বাদু আনারসের গুরুত্বপূর্ণ দিক। যদি মিষ্টি সুঘ্রাণ না থাকে তবে বুঝতে হবে আনারসটি সম্পূর্ণ পাকা নয়।
  • আনারসের রঙ দেখে আনারস নির্বাচন করা। আনারস পেকে গেলে হলুদ রঙ ধারণ করে, কিন্তু অপরিপক্ব আনারস সবুজ রঙের হয়ে থাকে। এজন্য আনারস সবসময় পাকা হলুদ রঙ দেখে নিতে হবে।
  • কিছু কিছু আনারসের হলুদ রঙের মাঝে হালকা সবুজ রঙ থাকে, এই আনারসের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন। আনারসটি অবশ্যই সম্পূর্ণ হলুদ রঙের ও মিষ্টি সুঘ্রাণযুক্ত হতে হবে।
  • শুকনো চামড়া, লালচে বাদামী চামড়া, ফাটল বা লিক, ছাঁচ বা বাদামী ঝাঁকনি পাতাযুক্ত আনারস এড়িয়ে চলুন। আনারসটি অবশ্যই তাজা হতে হবে। 
  • আনারস কাটার পর অনেকসময় পচা পাওয়া যায়, এজন্য আনারস ক্রয় করার পূর্বে আনারসের গায়ে হালকা চাপ দিয়ে দেখা উচিত। যদি আনারসের গায়ে চাপ দেয়ার পর আনারসের কোথাও নরম বলে মনে হয়। তাহলে বুঝতে হবে এই আনারসটি কাটলে পচা অংশ বের হবে।
  • আপনি চাইলে আনারস ফ্রিজে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন। তবে সবচেয়ে ভালো আনারসের জুস তৈরি করতে গেলে, সতেজ ও পাকা আনারস বাঞ্ছনীয়।

সঠিকভাবে আনারসের চামড়া ছেলা

প্রথমে আনারসটি একটি কাটিং বোর্ডের উপর রেখে সেট করে নিতে হবে এবং যেহেতু আনারসের চামড়া মোটা তাই ভালো ধারালো শেফের একটি ছুরির প্রয়োজন হবে। আনারসের উপরিঅংশে যে পাতা থেকে, পাতার গোড়ার (০.৬ সেমি ) নিচে ছুরিটি দিয়ে সমান্তরালভাবে পাতার অংশ কেটে ফেলে দিতে হবে।

আনারস কাটার পদ্ধতি; Source: wikihow.com

তারপর আনারসের চামড়াটি সুন্দর করে স্লাইজ করে ছিলতে হবে। এই কাজটি খুব সতর্কতার সাথে করা উচিত, কেননা লক্ষ্য রাখতে হবে চামড়ার সাথে যেন আনারসের ভেতরের মূল হলুদ অংশ চলে না যায়।

আনারসের চামড়া ছোলানোর পদ্ধতি; Source: wikihow.com

আনারস ছোলানোর ক্ষেত্রে আনারসের উপরিভাগ থেকে শুরু করে ঘড়ির কাটার দিকে নিচ পর্যন্ত ছাড়াতে হবে। এভাবে আনারসটিকে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে উপর থেকে নিচ পর্যন্ত ছুরিটি দিয়ে চামড়া ছিলতে হবে, যতক্ষণ পর্যন্ত আনারসের ভেতরের চোখ  দেখা না যায়।

আনারসের চামড়া ছোলানোর পদ্ধতি; Source: wikihow.com

আনারসের ভেতরের চোখ উঠিয়ে ফেলা

আনারসের ভেতরের অংশে যে চোখগুলো থাকে, জুস তৈরি করতে গেলে অবশ্যই সেগুলো সরিয়ে ফেলা উচিত। আনারসটিকে কাটিং বোর্ডের উপর উলম্বভাবে রাখতে হবে, তারপর যে অংশে চোখগুলো রয়েছে ঐ বরাবর ছুরি দিয়ে হালকা করে স্লাইজের মত করে কেটে কেটে দাগ দিতে হবে।

আনারসের ভেতরের চোখ উঠিয়ে ফেলার পদ্ধতি; Source: wikihow.com

যে অংশগুলোতে দাগ দেয়া হয়েছে তার অপর পাশ থেকে ৪৫ ডিগ্রি কোণে ছুরি দিয়ে কেটে কেটে চোখগুলো তুলে ফেলতে হবে। এভাবে দাগ দিয়ে আনারসের চোখ উঠানোর পর আনারসটি দখতে চমৎকার লাগবে।

আনারসের ভেতরের চোখ উঠিয়ে ফেলার পদ্ধতি; Source: wikihow.com

এরপর আনারসটিকে মাঝখান দিয়ে ভাগ করে লম্বা করে কেটে ফেলতে হবে এবং এক্ষেত্রে দুভাগের আনারসকে চারটি টুকরো করা যায়।

চোখ উঠিয়ে ফেলার পর দেখতে চমৎকার আনারস; Source: wikihow.com

আনারসের মাঝখানে সাদাটে দেখতে শক্ত এক প্রকার অংশ রয়েছে, এই অংশটি খেতে বিস্বাদ ও সাদামাটা। তাই এই অংশটি ছুরি দিয়ে কেটে ফেলে দিতে হবে।

চোখ উঠিয়ে ফেলার পর দেখতে চমৎকার আনারস; Source: wikihow.com

এই পর্যায়ে আনারসের মাংসল অংশ টুকরো টুকরো করে কেটে নিতে হবে, এটা আপনার পছন্দ মত সাইজে কেটে নিতে পারেন। তবে সাধারণত এক ইঞ্চি পরিমাপ এক একটি টুকরো করে কেটে নিতে পারেন।

ব্লেন্ডারে দেয়ার জন্য আনারসের টুকরো; Source: wikihow.com

একটি ব্লেন্ডারের মধ্যে টাটকা আনারস জুস তৈরি

এবার আনারসের টুকরোগুলো ব্লেন্ডারে ঢেলে নিতে হবে। ব্লেন্ডারের সাইজের উপর নিরভর করবে আপনি সম্পূর্ণ আনারস একবারে ঢেলে দিবেন, নাকি অর্ধেকটা আনারস ঢেলে নিবেন।

একটি ব্লেন্ডারের মধ্যে টাটকা আনারস জুস তৈরি; Source: wikihow.com

চিনি বা মধু মেশানো (ঐচ্ছিক)

এরপর ব্লেন্ডারের পাত্রে আপনি সামান্য চিনি বা মধু মেশাতে পারেন, যদিও এটা আপনার পছন্দের উপর নির্ভর করে। যদি আপনি অতিরিক্ত মিষ্টি পছন্দ না করেন, তবে তা মেশানোর প্রয়োজন নাই।

চিনি বা মধু মেশানো; Source: wikihow.com

বরফ মেশানো (ঐচ্ছিক)

যদি আপনি ঠাণ্ডা শীতল জুস খেতে পছন্দ করেন তবে ৭-৮ টুকরো বরফ মেশাতে পারেন, আর যদি একটু কম ঠাণ্ডা পছন্দ করেন তবে বরফ কুচি পরিমানমত ব্যাবহার করতে পারেন। তবে ঠাণ্ডা জুস পছন্দ না করলে বরফ মেশানোর প্রয়োজন নেই।

বরফ মেশানো; Source: wikihow.com

পানি যোগ করা

সাধারণত এই পর্যায়ে ব্লেন্ডারের পাত্রে এক কাপ পানি মেশানো হয়, তবে আনারসের জুস বেশি গাড় খেতে চাইলে আপনি কাপের ১/৪ বা ১/২ ভাগ পানি যোগ করতে পারেন। পানি মেশানোর ফলে আনারসের অম্লতা দূর করে জুসকে মসৃণ হতে সাহায্য করবে।

পানি যোগ করা; Source: wikihow.com

ব্লেন্ডারে আনারসের মিশ্রণটি ব্লেন্ড করা

আনারস ও বরফের পরিমাণের উপর নির্ভর করে এবার আনারস ব্লেন্ড করুন সাধারণত ১ মিনিট সময় ধরে ব্লেন্ড করতে পারেন। যদি মসৃণ না হয়, তবে আরও কিছুক্ষন সময় ধরে ব্লেন্ড করে নিতে পারেন।

ব্লেন্ডারে আনারসের মিশ্রণটি ব্লেন্ড করা; Source: wikihow.com

আনারস ব্লেন্ড করার পর তৈরি হয়ে যাবে সুস্বাদু আনারসের জুস, তবে আপনি আরও মসৃণ জুস খেতে চাইলে ব্লেন্ডারে করা জুসটি ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে গ্লাসে ঢেলে নিতে পারেন।

ব্লেন্ড করার পর ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে নেয়া; Source: wikihow.com

এছাড়াও আরও বিভিন্ন ফল ও অন্যান্য জিনিসের সাথে আনারস মিশিয়ে বিভিন্ন ফ্লেভারের আনারসের জুস তৈরি করা যায়, তবে সম্পূর্ণ আনারস ফ্লেভারের জুস খেতে চাইলে এই পদ্ধতিতে বানানো জুসটাই হবে সর্বোত্তম।

সুস্বাদু ও পুষ্টিকর আনারসের জুস; Source: wikihow.com

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here