সুস্বাদু স্প্যাগেটি বা কিমা পাস্তার রেসিপি

0
742

আমাদের দেশে নুডলস, চাওমিন, পাস্তা ইত্যাদির মতো স্প্যাগেটি এতোটা জনপ্রিয় খাবার নয়। সেজন্য অনেকেই স্প্যাগেটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানেন না। অধিকাংশ লোকজনই রেস্টুরেন্টে স্প্যাগেটি খেয়ে এটিকে নুডলস বা চাওমিনের সমগোত্রীয় ভাবেন। কিন্তু আসলে স্প্যাগেটি হলো একধরনের পাস্তা। আকার নুডলস বা চাওমিনের মতো হলেও এটি পাস্তার অন্তর্ভুক্ত।

পাস্তার মতোই স্প্যাগেটিও একটি ঐতিহ্যবাহী ইতালিয়ান খাবার। ইতালিয়ানদের তাদের নিজস্ব রান্নার বিষয়ক খুঁতখুঁতে স্বভাবের কারণেই পৃথিবীর সেরা স্বাদের স্প্যাগেটি আপনি ইতালিতেই খোঁজে পাবেন। কিন্তু ইতালি যারা কখনো যাবেন না বা যেতে পারবেন না তারা রেস্টুরেন্টের চেয়েও লোভনীয় স্বাদের স্প্যাগেটি ঘরেই তৈরি করে নিতে পারেন। রান্নার পদ্ধতিও খুবই সহজ। আমি নিজেই আনুমানিক পনের দিনের মধ্যে দুইবার স্প্যাগেটি রান্না করে ফেলেছি।

স্প্যাগেটি; Source: লেখিকা

ইদের আগে সুপারশপ স্বপ্নে গিয়েছিলাম নিত্যপ্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র কিনতে। গিয়ে দেখি স্প্যাগেটির অফার চলছে। একটির সাথে অন্য আরেকটি ফ্রি। বাইরে খাওয়া হলেও বাসায় কখনো স্প্যাগেটি রান্না করিনি। ফ্রি অফার পেয়ে স্প্যাগেটি রান্নার লোভ সামলাতে পারিনি তাই নিয়েই এলাম। ইদের দিন রান্না করবো ভাবলেও আর রান্না করা হয়নি। ইদের পর একদিন রান্না করলাম। রান্নাটি সবার এতোই পছন্দ হলো এরপর বাসায় কিছু মেহমান এলেও আমার ঘাড়েই স্প্যাগেটি রান্নার দায়িত্ব চলে এলো।

এই দুইদিনের স্প্যাগেটি রান্নার অভিজ্ঞতা থেকে আজকে স্প্যাগেটির রেসিপিটি লিখতে বসলাম। আশা করি পুরো লেখাটি পড়ে শেষ করার পর পাঠকরা খুব সহজেই মজাদার স্প্যাগেটি ঘরেই তৈরি করে খেতে পারবেন। স্প্যাগেটি রান্নায় পরিশ্রম এবং সময় দুটোই কম লাগে। সেজন্য তেমন ঝামেলার কিছুই নেই। আমিও প্রথমে ভেবেছিলাম স্প্যাগেটি রান্না বোধহয় বেশ ঝামেলার, আসলে তেমন কিছুই নয়।

কিমা পাস্তা; Source: লেখিকা

যেহেতু স্প্যাগেটি একধরনের পাস্তা, তাই এটি রান্নার পদ্ধতির উপর ভিত্তি করে আমার রান্নাটির দুটো নাম রয়েছে – স্প্যাগেটি বা কিমা পাস্তা। দেশি স্টাইলে বা উপকরণের ভিন্নতায় স্প্যাগেটি রান্নার আরো প্রকারভেদ রয়েছে। তবে, আমার কিমা দিয়ে তৈরি করতেই বেশি ভালো লেগেছে। অবশ্য এরপর ভিন্ন পদ্ধতিতে রান্নারও ইচ্ছে রয়েছে। এসব কথা রেখে এবার সরাসরি চলে যাচ্ছি রেসিপিতে।

স্প্যাগেটি/কিমা পাস্তা

খুবই মজাদার স্বাদের এই পাস্তাজাতীয় খাবারটি তৈরি করা বেকড পাস্তা বা অন্যান্য পাস্তার চেয়ে তুলনামূলক সহজ। খাবারটি খেতেও খুবই লোভনীয়। কিমা দিয়ে স্প্যগেটি রান্নার পদ্ধতিটি ইতালিয়ান রান্নার পদ্ধতি। সেজন্য এভাবে রান্না করলে অনেকটাই ইতালিয়ান স্বাদও পাওয়া যাবে। চলুন তাহলে স্প্যাগেটি বা কিমা পাস্তা তৈরি করার জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ এবং রেসিপিটি সম্পর্কে জেনে নিই।

প্রয়োজনীয় উপকরণ

উপকরণ; Source: লেখিকা

  • ১৫০ গ্রাম স্প্যাগেটি
  • ২৫০ গ্রাম গরুর বা খাসির মাংস
  • ৮-১০ টি ইতালিয়ান বেসিল
  • ৪টি টমেটো বা টমেটো সস
  • ১/২ কাপ পেঁয়াজ কুচি
  • ১ টেবিল চামচ আদা বাটা
  • ১ চা চামচ মরিচ গুঁড়ো
  • ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • ১ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
  • ১ চা চামচ ভিনেগার
  • ১/২ চা চামচ সাদা গোলমরিচ গুঁড়ো
  • ১/২ চা চামচ কালো গোলমরিচ গুঁড়ো
  • ১/২ চা চামচ পাঁচফোড়ন গুঁড়ো
  • লবণ (প্রয়োজন অনুযায়ী)
  • সয়াবিন তেল (প্রয়োজন অনুযায়ী)

যেভাবে রান্না করবেন

আস্ত স্প্যাগেটি সেদ্ধ করার উপায়; Source: লেখিকা

১. প্রথমেই একটি বড় হাড়িতে এক চামচ লবণ দিয়ে প্রয়োজনমতো পানি গরমে বসিয়ে দিন। হাড়ি বেশ বড় আকারের হতে হবে কারণ স্প্যাগেটিগুলো বেশ লম্বা হয়। স্প্যাগেটি কেনোমতেই ভেঙ্গে সেদ্ধ করতে দেবেন না। পানি গরম হয়ে গেলে স্প্যাগেটিগুলো হাড়িতে দিয়ে দিন। পুরো অংশটুকু পানিতে না ডুবলেও এভাবেই রেখে দিন।

নিচের অংশগুলো সেদ্ধ হয়ে আপনাআপনিই পুরো স্প্যাগেটি হাড়িতে পানির নিচে চলে যাবে। স্প্যাগেটি বেশ পুরু হয়। এটিও পাস্তার মতো বেশ খানিকটা সময় ধরে সেদ্ধ করতে হয়। মিনিট পনেরো সেদ্ধ করে চুলা থেকে নামিয়ে ছিদ্রযুক্ত চালুনিতে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর পানি ঝড়িয়ে নিতে হবে।

কিমা রান্না করা হচ্ছে; Source: লেখিকা

২. স্প্যাগেটি সেদ্ধ হতে হতে হাড় এবং চর্বিছাড়া গরুর বা খাসির মাংস কিমা করে নিন। মুরগির মাংসও ব্যবহার করতে পারবেন। তবে মুরগির মাংস দিয়ে রান্না করলে কিমা পাস্তার স্বাদটুকু সেভাবে পাবেন না। তাই, গরু বা খাসি ব্যবহার করাই শ্রেয়। আমি কিমা করার ব্লেন্ডারে কিমা করে নিয়েছিলাম। ব্লেন্ডার না থাকলে হালকা সেদ্ধ করে পাটায় বেটে কিমা করে নিন।

৩. স্প্যাগেটি সেদ্ধ এবং কিমা করা হয়ে যাওয়া মানেই উপকরণগুলো প্রস্তুত করার ঝামেলা শেষ। এবার রান্না করার পালা। একটি বড় ননস্টিক প্যান নিয়ে নিন। প্যানটি একটু বড় আকারের নেবেন যাতে নাড়াচাড়া করতে সুবিধা হয় এবং স্প্যাগেটি ভেঙ্গে না যায়। ননস্টিক ছাড়াও করতে পারেন তবে অধিক নেড়েচেড়ে রান্না করতে হবে, এভাবে স্প্যাগেটি ভেঙ্গে যাবে। তাই ননস্টিক প্যানে রান্না করাই ভালো।

অল্প অল্প করে কিমার সাথে স্প্যাগেটি মেশানো হচ্ছে; Source: লেখিকা

প্যানটি অল্প আঁচে গরম করে নিন। তারপর এতে সয়াবিন তেল দিয়ে গরম করে নিন। তেল গরম হয়ে গেলে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে মিনিট খানেক ভেজে নিন। তারপর আদা বাটা, মরিচ, হলুদ, ধনিয়া, পাঁচফোড়ন গুঁড়ো এবং লবণ দিয়ে আরো মিনিট দুয়েক নেড়েচেড়ে রান্না করুন। এরপর এতে ইতালিয়ান বেসিল দিয়ে দিন। ইতালিয়ান বেসিল খুবই সুন্দর একটি ফ্লেভার তৈরি করবে। ইতালিয়ান বেসিল না থাকলে অল্প পরিমাণে তুলসীপাতা ব্যবহার করুন।

৪. পেঁয়াজ এবং মশলাগুলো ভাজা হয়ে হয়ে মাংসের কিমা দিয়ে পাঁচ মিনিট অল্প আঁচে নেড়েচেড়ে ভেজে নিন। এরপর এতে ব্লেন্ড করা টমেটো পেস্ট বা টমেটো সস দিয়ে দিন। বাজারে টমেটো না পাওয়ায় আমি সসই ব্যবহার করেছিলাম। টমেটো বা সস দিয়ে নেড়েচেড়ে রান্না করতে থাকুন। একইসাথে গোলমরিচের গুঁড়োগুলো এবং ভিনেগার দিয়ে দিন। ভিনেগার মাংস সেদ্ধ হতে সাহায্য করবে। কিমা রান্না হতে ১০-১৫ মিনিট সময় লাগবে।

৫. কিমা রান্না হয়ে গেলে এতে অল্প অল্প করে স্প্যাগেটি দিয়ে নেড়েচেড়ে মশলা মিশিয়ে নিন। একবারে সবটুকু স্প্যাগেটি দেবেন না, এতে পুরোটায় ভালো করে কিমা আর মশলা মিশবে না। ধাপে ধাপে সবটুকু স্প্যাগেটি দেয়া হলে গেলে আরো মিনিট পাঁচেক নেড়েচেড়ে রান্না করে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। সম্পূর্ণ স্বাদটুকু পেতে গরম গরম পরিবেশন করুন।

Feature Image: লেখিকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here